সিঙ্গাপুরে প্রাণঘাতী নোভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছেই। এরইমধ্যে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ২০ হাজার ১৯৮ জন ছাড়িয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৭৮৮ জন।

অপরদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ১৮ জন। ইতোমধ্যেই করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছে ১ হাজার ৫১৯ জন। দেশটিতে করোনার অ্যাক্টিভ কেস ১৮ হাজার ৬৬১টি। অপরদিকে ২৪ জনের অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক।

অন্যদিকে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসছে। কিন্তু এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য আরও বড় বিপদের খবর দিল নিউইয়র্ক টাইমস।সংবাদমাধ্যমটির প্রকাশিত একটি রিপোর্ট বলা হয়েছে, ১ জুন থেকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিন তিন হাজার মানুষের মৃত্যু হতে পারে।

বিশেষজ্ঞদের একাংশের বক্তব্য, এর ফলে জুনের প্রথম দিন থেকে গড়ে তিন হাজার লোকের মৃত্যু হবে যুক্তরাষ্ট্রে। আরও অন্তত দুই লাখ মানুষ আক্রান্ত হবেন। যদিও এ ধরনের কোনও রিপোর্টের কথা অস্বীকার করেছে হোয়াইট হাউস।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২ লাখ ৫৮ হাজার ৩৩৮ জন। এছাড়া এ ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ৩৭ লাখ ২৭ হাজার ৮০২ জনের শরীরে। এরইমধ্যে ২১০টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস।

আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১২ লাখ ৪২ হাজার ৩৪৭ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন ২২ লাখ ২৭ হাজার ১১৭ জন। এদের মধ্যে ২১ লাখ ৭৭ হাজার ৮৬৯ জনের শরীরে মৃদু সংক্রমণ থাকলেও ৪৯ হাজার ২৪৮ জনের অবস্থা গুরুতর।

মৃতের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের পরের অবস্থানে উঠে এসেছে যুক্তরাজ্য। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২৯ হাজার ৪২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৯৪ হাজার ৯৯০ জন।

মৃত্যুর তালিকার তিন নম্বরে রয়েছে ইউরোপের দেশ ইতালি। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২৯ হাজার ৩১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ১৩ হাজার ১৩ জন।

এর পরের অবস্থানেই রয়েছে স্পেন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২৫ হাজার ৬১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে অবশ্য ২য় অবস্থানে রয়েছে এ দেশটি। এখানে ২ লাখ ৫০ হাজার ৫৬১ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

মৃত্যুর তালিকায় এর পরের অবস্থানে রয়েছে ফ্রান্স। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২৫ হাজার ৫১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৭০ হাজার ৫৫১ জন।

জার্মানিতে ১ লাখ ৬৭ হাজার ৭ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৯৯৩ জনের।

তুরস্কে ১ লাখ ২৯ হাজার ৪৯১ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এখানে মৃত্যু হয়েছে সাড়ে ৩ হাজারের বেশি মানুষের।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, রাশিয়ার করোনাভাইরাস ক্রাইসিস রেসপন্স সেন্টার বুধবার এক বিবৃতিতে রোগী শনাক্তের এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। রাশিয়ায় এ পর্যন্ত মোট সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়েছে, এক লাখ ৬৫ হাজার ৯২৯ জনে। তবে মৃত্যুর সংখ্যা তুলনামূলক কম। এ সংখ্যা এক হাজার ৫৩৭ জনে।

কানাডায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬২ হাজার ৪৬ জন, মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৪৩ জনের।

ভাইরাসটি প্রথম শনাক্ত হয় চীনে। সেখানে এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৮২ হাজার ৮৮৩ জন এবং মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৩৩ জন।

এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে ইরানে। এখানে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৯৯ হাজার ৯৭০ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৩৪০ জনের।

বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে ১০ হাজার ৯২৯ জনের শরীরে। এদের মধ্যে মারা গেছেন ১৮৩ জন এবং সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ১৪০৩ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন ৯ হাজার ৩৪৩ জন।

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

মৃত্যু বেড়ে ৩১১১,…
বাংলাদেশে বিমানবন্দর উন্নয়নে…
দেশে করোনায় আরও…
কাল পবিত্র হজ
দোষী সাব্যস্ত মালয়েশিয়ার…
বিশ্বজুড়ে করোনা থেকে…
আয়া সোফিয়া দ্বন্দ্বে…
মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ…
গরুর মাংসের ঝাল…

বৃহস্পতিবার শবে বরাত, তবে…

করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি…

করোনাঃ মৃত্যু ১, নতুন…

হাটহাজারীতে এক হাজার পরিবারের…

বন্ধু নির্বাচন করনীয়