নিজস্ব প্রতিনিধি, চট্টগ্রামঃ

করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতায় বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা ইতিমধ্যেই মহামারির ইঙ্গিত দিয়েছে, সেই সাথে বিশ্বব্যাংক, জাতিসংঘ এবং বিশ্বের নানান গবেষণা সংস্থার তথ্যানুযায়ী শুধুমাত্র এই ভাইরাসের প্রকোপে দক্ষিণ এশিয়ার বেকারত্ব লাভ করবে কয়েক কোটি মানুষ। বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা চার হাজার এর অধিক।বিশ্বব্যাপী প্রাণহানির সংখ্যা দুই লক্ষের কাছাকাছি।

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, ইতালি, স্পেন ছাড়া বিভিন্ন উন্নত দেশ যেখানে ভাইরাসের প্রকোপ মোকাবেলায় হিমশিম খেয়েছে সেখানে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলাতে দিন দিন জ্যামিতিক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা।

করোনা ভাইরাসে বাংলাদেশে প্রথম আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল ৮ই মার্চ। এরপর গত ২৫ই মার্চ থেকে সকল সরকারী বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করার পর দিনমজুর, খেটে খাওয়া মানুষ, নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্তদের মাঝে “ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময় – পূর্নিমার চাঁদ যেন জলসানো রুটি” এমন ভীতিকর মনোভাব তৈরী হয়েছে।
চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী নাজিরহাট পৌরসভার ৯ নং ওয়াড় হাজী রহমত আলী সারাং বাড়ী নিবাসী, হাজী রহমত আলী সারাং এর সুযোগ্য উত্তরসূরী, সংযুক্ত আরব আমিরাত বসবাসরত বাঙালী কমিউনিটির প্রিয় মুখ, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, সমাজ সেবক, শিক্ষানুরাগী, দানবীর “পারভীন আলম” ফাউন্ডেশনের সম্মানিত চেয়ারম্যান জনাব মো. তারেকুর রহমান চৌধুরী রুবেল। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ফলে আজ বিপন্ন বিশ্ব এবং মানবতা। ঘরে অবরুদ্ধ মানুষ কর্মহীন। এই পরিস্থিতিতে তিনি মানবতার সেবায় এগিয়ে এসেছেন সাধারণ মানুষের পাশে। আসন্ন পবিত্র মাহে রমজানে সাধারণ মানুষের কষ্ট লাগব হবে এই চিন্তা চেতনায় নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী নিয়ে তিনি এগিয়ে এসেছেন ভালবাসার উপহার, সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে কাজ করে যাচ্ছেন একটি সেচ্ছাসেবী টীম, যারা ফোন বা এস এম এস করলে হাজির হচ্ছেন সাধারণ মানুষের পাশে। পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে ভালবাসার উপহার হিসেবে নিত্য প্রয়োজনীয় উপহার সামগ্রী।
পারভিন আলম ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান, সমাজ সেবক ও দানবীর জনাব মোহাম্মদ তারেকুর রহমান চৌধুরী রুবেল সকালের কন্ঠকে জানান আমার মা বাবার নামে প্রতিষ্টিত মানব সেবামুলক সংঘটন এর মাধ্যমে আমি দেশের এ ক্লান্তিকালে নাজিরহাট পৌরসভার সাধারন হতদরিদ্র, অসহায় খেটে খাওয়া মানুষের পরিবারে সামান্য কিছু ভালবাসার উপহার দিয়ে অন্তত কিছু টা হলেও মুখে হাসি ফুটাতে চেষ্টা করছি।
তিনি আরো বলেন যারা মধ্যবিত্ত পরিবার আছেন, মুখ লজ্জায় কিছু বলতে ও পারছে না,সহ্য ও করতে পারছে না, না খেয়ে কষ্টের দিন পার করতেছেন,তাদের জন্য গোপনিয়তা রক্ষা করে তাদের বাসায় পৌছে দিয়ে আসবে আমার প্রিয় ভাইরা।
আমি দেশের বাহিরে থাকলে ও আমাকে সহযোগিতা করে যাচ্চেন আমার প্রানপ্রিয় ছোট ভাই রা, নাজিরহাট পৌরসভা ছাত্রলীগ র সাধারন সম্পাদক আমান উল্লাহ আমান সহ এক ঝাক তরুন যুবক ভাই।
ইনশাআল্লাহ্ আপনাদের সহযোগিতা কামনা করি।সবসময় আপনাদের পাশে থাকবে পারভিন আলম ফাউন্ডেশন।

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

মৃত্যু বেড়ে ৩১১১,…
বাংলাদেশে বিমানবন্দর উন্নয়নে…
দেশে করোনায় আরও…
কাল পবিত্র হজ
দোষী সাব্যস্ত মালয়েশিয়ার…
বিশ্বজুড়ে করোনা থেকে…
মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ…
গরুর মাংসের ঝাল…
ফের সীমান্তে ভারতীয়দের…

বৃহস্পতিবার শবে বরাত, তবে…

করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি…

করোনাঃ মৃত্যু ১, নতুন…

হাটহাজারীতে এক হাজার পরিবারের…

বন্ধু নির্বাচন করনীয়