হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি ঃ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির অন্যতম সদস্য জনাব মোঃ রাশেদুল ইসলাম রাসেলের উদ্যোগে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সৌজন্যে হাটহাজারী উপজেলার অর্ধ সহস্রাধিকেরও অধিক পরিবারকে দেওয়া হয় নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যাদির উপহার যাকে “বৈশাখী উপহার” হিসেবে উল্লেখ করেন তরুণ এই আওয়ামী লীগ নেতা।


প্রথম পর্যায়ে ১৬০০ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয় এবার ২য় পর্যায়ে আরো ৬০০ পরিবারের জন্য এই খাদ্য সামগ্রী “বৈশাখী উপহার”!
এ বিষয়ে জানতে চায়লে সাবেক এই ছাত্রনেতা বলেন, ” আসলে আমার নিজের ও বন্ধুদের যৌথ উদ্যোগে এই নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি বিতরণ করছি যার নাম দিয়েছি বৈশাখী উপহার! প্রথম পর্যায়ের নাম ছিল “Carnival of Love-Spirit of Giving”, এরো পূর্বে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ফেস মাস্ক ও করোনা ভাইরাস নিয়ে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করি কিন্তু মার্চের শেষ দিকে এসে খাদ্য সহায়তা উপহার হিসেবে দিয়ে আসছি যা অব্যাহত থাকবে” তিনি আরো বলেন, “আওয়ামী লীগ সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনা দলীয় নেতা-কর্মীদের কর্মহীন হত দরিদ্রদের সহযোগিতা করতে বলেছেন যার যার সাধ্যমত সেই ধারাবাহিকতায় আমি চেষ্টা করছি এলাকাবাসীর জন্য কিছু করার”।
কাদের এই উপহার বা খাদ্য সহায়তা দেওয়া হচ্ছে জানতে চায়লে রাসেল বলেন, “এবার আমরা মধ্যবিত্ত পরিবার ও প্রবাসী ভাইদের পরিবারের দিকে বেশী নজর দিচ্ছি এছাড়াও প্রত্যন্ত অঞ্চলে বসবাসকারী পরিবারগুলো যারা যোগাযোগ ব্যবস্থার কারনে সহজে সদরে আসতে পারেন না তাদেরও আমরা এই উপহার পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছি”।


কিভাবে এই তালিকা করা হয়েছে জানতে চায়লে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, “আমরা মূলত প্রবাসী ভাইদের নিকট হতে তালিকা সংগ্রহ করেছি, পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হতে অনেক পরিবারের তালিকা এসেছে এছাড়াও আমাদের ভলান্টিয়ারদের নিকট হতে প্রাপ্ত প্রত্যন্ত অঞ্চলে বসবাসরত পরিবারের তালিকা, স্থানীয় বেশ কয়েকজন জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের হতে তালিকা সংগ্রহ করেছি”।
কিভাবে এই উপহার দেওয়া হচ্ছে জানতে চায়লে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির এই সদস্য বলেন, “সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা অনেক কঠিন হয়ে পড়ছে তাই আমাদের ভলান্টিয়াররা স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে তালিকাভুক্ত পরিবার সমূহে পৌঁছে দিচ্ছে এই উপহার”।

তাঁর এই উপহার সামগ্রী মূলত নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি দিয়ে প্যাকেট করা হয় যার মধ্যে রয়েছে ৫ কেজি চাল, ১ কেজি ছোলা বুট, ২/৩ কেজি আলু, ১ লিটার সয়াবিন তেল, ১ কেজি পেঁয়াজ, ১ প্যাকেট লবণ, ২টি স্যাবলোন সাবান। সামনে রমজান মাস উপলক্ষে ছোলা বুট অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে বলে জানান এই বিতরণ কার্যক্রমের সমন্বয়ক ও ছাত্রনেতা জনাব জিসান। প্যাকেটিংয়ের সময় যথেষ্ট পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা মানা হয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
আপদকালীন সময়ে বিভিন্ন ধাপে এমন উপহার সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ নেতা রাসেল বলেন, “আপদকালীন সময়ে মূলত সকলে পরিস্থিতির শিকার! এখানে কাউকে হেয় বা ছোট করে দেখা উচিত হবে না, এই সময় একজন আরেকজনকে সহযোগিতা করতে হবে” তিনি এলাকাবাসীকে নিজ গৃহে অবস্থান করার অনুরোধ জানিয়ে বলেন, “অতি জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হওয়া উচিত হবে না, আর যথাযত পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ও সামাজিক দূরুত্ব অবশ্যই মেনে চলতে হবে”।

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

মৃত্যু বেড়ে ৩১১১,…
বাংলাদেশে বিমানবন্দর উন্নয়নে…
দেশে করোনায় আরও…
কাল পবিত্র হজ
দোষী সাব্যস্ত মালয়েশিয়ার…
বিশ্বজুড়ে করোনা থেকে…
মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ…
গরুর মাংসের ঝাল…
ফের সীমান্তে ভারতীয়দের…

বৃহস্পতিবার শবে বরাত, তবে…

করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি…

করোনাঃ মৃত্যু ১, নতুন…

হাটহাজারীতে এক হাজার পরিবারের…

বন্ধু নির্বাচন করনীয়