খালেদ খুররাম পারভেজ, ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ

ময়মনসিংহের বিভিন্ন উপজেলায় বিস্ফোরক লাইসেন্স ছাড়াই বিক্রি হচ্ছে সিলিন্ডার গ্যাস, পেট্রল, ডিজেলসহ অন্যান্য বিস্ফোরক পদার্থ। রাস্তাঘাট, মুদির দোকান, ফার্মেসি ও সড়কের মোড়ে অবাধে বিক্রি করা হচ্ছে এসব দাহ্য পদার্থ। বিস্ফোরক সনদ ছাড়া কোনো ধরনের নিয়মনীতি না মেনে এভাবে দাহ্য পদার্থ বিক্রি ও মজুদ করার ফলে দুর্ঘটনার ঝুঁকি বাড়ছে বলে মনে করেছেন এলাকাবাসী, সচেতন মহল ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

সরেজমিনে মুক্তাগাছা উপজেলা গিয়ে দেখা যায় , উপজেলার প্রায় প্রতিটি ইউনিয়নের বিক্রি করা হচ্ছে এসব বিস্ফোরক পদার্থ। এছাড়া শহর ও গ্রামের প্রায় ৪০-৫০ বিভিন্ন দোকানে অবাধে বিক্রি হচ্ছে বিভিন্ন কোম্পানির এসব দাহ্য পদার্থ।
জানা গেছে, এসব দোকানির অনেকেরই ট্রেড লাইসেন্স নেই। গ্যাস সিলিন্ডার ও দাহ্য পদার্থ বেচাকেনার সরকারি কোনো দপ্তরের অনুমোদনও নেই, নেই কোনো অগ্নি নির্বাপক যন্ত্র। বড় কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে প্রতিকারেরও কোনো ব্যবস্থা নেই। ফলে যে কোনো সময় প্রাণহানির ঘটনা ঘটতে পারে।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী, সেবা গ্রহীতার জীবন বা নিরাপত্তা বিপন্ন হতে পারে এমন কোনো কাজ করলে তিন বছরের কারাদণ্ড বা অনধিক দুই লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হওয়ার বিধান রয়েছে। কিন্তু ঝুঁকিপূর্ণ এসব দাহ্য পদার্থ সঠিকভাবে সংরক্ষণ না করে সরকারি কোনো পরিদপ্তরের লাইসেন্স ছাড়াই যত্রতত্র বিক্রি করছে।
বিস্ফোরক পরিদপ্তর সূত্র জানায়, সরকারি বিধি মোতাবেক গ্যাস সিলিন্ডার, পেট্রল, মবিল, ডিজেল বিক্রির জন্য কমপক্ষে পাকা মেঝেসহ আধা পাকা ঘর থাকা বাধ্যতামূলক। এছাড়া ফায়ার সার্ভিসের অগ্নিনির্বাপণ সক্ষমতা সংক্রান্ত লাইলেন্সসহ অগ্নিনির্বাপণ সিলিন্ডার এবং মজবুত ও ঝুঁকিমুক্ত সংরক্ষণাগার থাকতে হবে। কোনো ব্যবসায়ী ওই সব শর্ত পূরণ করলেই কেবল বিস্ফোরক দ্রব্য বিক্রির নিবন্ধন পাওয়ার যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন। বিস্ফোরক দ্রব্য বিক্রির লাইসেন্স ছাড়া কোনো দোকানে এসব দাহ্য পদার্থ বিক্রি করা যাবে না। বিস্ফোরক অধিদপ্তরের লাইসেন্স ছাড়া দাহ্য পদার্থ কেনাবেচার কোনো সুযোগ নেই। শীঘ্রই লাইসেন্স বিহীন এসব অবৈধ ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় আনা হবে। যত্রতত্র সিলিন্ডার গ্যাস, ডিজেল, অকটেন ব্যবসায়ীদের উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অনেকবার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা মাধ্যমে অর্থদণ্ড ও সর্তক করা হয়েছে। এমনকি সবাইকে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করার জন্যও বলা হয়েছে।

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

মৃত্যু বেড়ে ৩১১১,…
বাংলাদেশে বিমানবন্দর উন্নয়নে…
দেশে করোনায় আরও…
কাল পবিত্র হজ
দোষী সাব্যস্ত মালয়েশিয়ার…
বিশ্বজুড়ে করোনা থেকে…
মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ…
গরুর মাংসের ঝাল…
ফের সীমান্তে ভারতীয়দের…

বৃহস্পতিবার শবে বরাত, তবে…

করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি…

করোনাঃ মৃত্যু ১, নতুন…

হাটহাজারীতে এক হাজার পরিবারের…

বন্ধু নির্বাচন করনীয়