মোঃ এরশাদ আলী, হাটহাজারী( চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:-

জোবরা পি পি স্কুল এন্ড কলেজে সততা সংঘের উদ্যোগে রচনা প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান বৃহস্পতিবার ( ১৯ সেপ্টেম্বর) কলেজ হল রুমে সততা সংঘের সহযোগিতায় সম্পন্ন হয়। এতে বক্তব্য, রচনা, গান, কবিতা আবৃত্তি সহ জমকালো আয়োজনে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয় এই শিক্ষার্থীদের উৎসবের অনুষ্ঠান। এতে সভাপতিত হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ আক্তার হোসেন, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন চন্দনা বড়ুয়া, ইংরেজি শিক্ষক মোঃ সরওয়ার আলম, শিরিন আকতার, মুহাম্মদ নাসির উদ্দীন, ফাহিমা আক্তার প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন তোমাদের আরো এগিয়ে আসতে হবে এবং জাতীয় পর্যায়ে বিজয়ী হতে হবে। আরো বলেন আজকের আধুনিক বিশ্বে যে জাতি প্রযুক্তিতে, জ্ঞানে ও বিজ্ঞানে উন্নত সে জাতি নেতৃত্বের চেয়ারে উপবিষ্ট। শারীরিক শক্তিতে নয়, মেধায়-যোগ্যতায় যে বেশি দক্ষ পরিচালনায় সে বেশি সার্থক। এখানে একটি ঘটনাকে উদাহরণ হিসেবে দেয়া যায়। আল্লামা ইকবালের সময় এক জন কুস্তিগির ছিল যাকে গামা পালোয়ান নামে ডাকা হতো। গামা পালোয়ান প্রতিদিন সকালে ভালো মানের নাশতা করে শারীরিক ব্যায়াম করতেন এর পর অন্য কাজ করতেন কিন্তু মজার বিষয় হলো অনেক সময় শারীরিক ব্যায়াম করার পর, তার দেহ থেকে ঘাম বের হতো। আর এ জন্য সে গর্বিত ছিল। আল্লামা ইকবাল তাকে একটু শিক্ষা দেয়ার জন্য একটি সেমিনারে আহবান করলেন। সেমিনারে তার আগে কয়েক জন বক্তা বক্তব্য পেশ করলেন। এর পর গামা পালোয়ানকে বক্তব্য দেয়ার জন্য নাম ঘোষণা করা হয়। তিনি ডায়াসে দাঁড়িয়ে বক্তব্য শুরু করলেন, কিছু বলার চেষ্টা করছেন কিন্তু কোন কথা তার জবান দিয়ে আসছিলো না। তিনি এতটুকুই বললেন যে, আমার আগে অনেক বক্তা গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেছেন এবং পরেও গুরত্বপূর্ণ আলোচনা হবে, সকলকে ধন্যবাদ বলে কথা শেষ করলেন।
এরপর গামা পালোয়ান বললেন, হে আল্লামা ইকবাল তুমি আমাকে কি এক কঠিন পরীক্ষা নিলে যে এক মিনিটেই আমার শরীর থেকে ঘাম বের হলো অথচ আমি এই ঘাম ঝরানোর জন্য প্রতিদিন সকালে দুই-তিন ঘণ্টা পরিশ্রম করি। আল্লামা ইকবাল উত্তর দিলেন হে গামা পালোয়ান, মুসলিম জাতির জন্য তোমার মত হাজার হাজার পালোয়ানের প্রয়োজন নেই, প্রয়োজন হলো একজন জ্ঞানীর যে মুসলিম জাতিকে পুনর্জাগরণে নেতৃত্ব দিতে পারবে। আসলেই বর্তমান সঙ্কট মোকাবেলা করার জন্য সেই ধরনের জ্ঞানী নকিব দরকার যে এ ঘুমন্ত জাতিকে জাগিয়ে কুরআনের আলোয় আলোকিত করবে। সকল সঙ্কটের মূল কারণ খুঁজে বের করার জন্য গবেষণামূলক কার্য পরিচালনা করবে। গবেষণার মাধ্যমে আসহাবে রাসূলের কর্মপন্থা অনুযায়ী সমাজ পরিচালনা করবে। সকল মুসলিমকে কুরআনের জ্ঞানে জ্ঞানী হওয়ার সুযোগ সৃষ্টি করে দেবে। অনুষ্ঠান শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

চান্দিনায় করোনার সচেতনতায়…
যশোরে হোম কোয়ারেন্টাইন…
করোনার ভয়ে হিন্দু…
মাঝি-কুলি-দিনমজুরদের পাশে বিআইডব্লিউটিএ,…
চান্দিনা প্রশাসন কতৃর্ক…
রংপুর মেডিকেলে করোনা…
সিলেটের রাস্তায় পড়ে…
চান্দিনায় করোনা ভাইরাস…
কাতারে করোনায় ১…

যশোরে হোম কোয়ারেন্টাইন শেষে…

রংপুর মেডিকেলে করোনা ইউনিটে…

সিলেটের রাস্তায় পড়ে থাকা…

কাতারে করোনায় ১ বাংলাদেশির…

বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসে পাক…