কুমিল্লার চান্দিনায় মহাসড়কের পাশে ময়লার স্তুপ; হুমকির মুখে জনস্বাস্থ্য।।সকালের কন্ঠ

সকালের কণ্ঠ

আলিফ মাহমুদ কায়সার,কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ

♦দুর্গন্ধে নাকাল জন-জীবন

♦ভোগান্তিতে শিক্ষার্থী ও পথচারীরা

♦আগুনে পুড়ে মরছে মহাসড়কস্থ গাছ

♦ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা
কুমিল্লার চান্দিনা অংশে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশ ঘেসে ময়লার স্তুপের কারণে জনস্বাস্থ্য এখন হুমকির মুখে।উপজেলার সীমান্ত পালকি সিনেমা হতে সাহাপাড়া ব্রিজ পর্যন্ত রাস্তার ২ পাশের ফাঁকা জায়গায় অনেক স্পটে ময়লার স্তুপ দেখা গেছে।

‘নাক চেপে ধরে এসব এলাকায় পথ চলতে পথচারীদের দম বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়। আবার নাক ছাড়লেই দুর্গন্ধে যেন পেট ফেঁপে যায়”। এমন মন্তব্য একজনের নয়, হাজার হাজার স্কুল-কলেজ পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রী ও সাধারণ পথচারী গণমানুষের। বিশেষ করে যারা ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে যাতায়ত করেন।

পথচারী ও স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, উপজেলার বেশ কয়েকটি স্পটে মহাসড়কের পাশে ময়লা-আবর্জনা, বর্জ্য ফেলা হয়। অনেক বছর ধরে ওই এলাকা গুলোতে ময়লা ফেলা হচ্ছে। ময়লা-আবর্জনা আর বর্জ্যের উৎকৃষ্ট দুর্গন্ধ আর বিপন্ন পরিবেশের কারণে ওই রাস্তাটি দিয়ে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পরছে।

প্রতিদিন রিক্সা, ভ্যানগাড়ী ও ট্রাকে করে উপজেলা সদরের বিভিন্ন অলিগলি ও বাসাবাড়ী থেকে সংগ্রহ করা বর্জ্যগুলো সেখানে ফেলা হচ্ছে। ভোর থেকে দুপুর ও রাতের আঁধারে এসব বর্জ্য ফেলার সময় দুর্গন্ধে বাতাস দূষিত হয়ে পড়ে। কাকপাখিরা সেখান থেকে উচ্ছিষ্ট নিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তায় চলাচলকারী ছাত্র-ছাত্রী, জনসাধারণ ও যানবাহনের ওপর পড়ে।

এতে রাস্তায় ময়লা-আবর্জনা ছড়িয়ে পড়ার পাশাপাশি পথচারীর শরীরে পড়ায় জামা-কাপড় নষ্ট হয়ে যায়। আশপাশের শতাধিক পরিবার একই অবস্থার মুখোমুখি বছরের পর বছর ধরে। সারা দিনই পশুপাখির উৎপাতে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। দুর্গন্ধে এলাকার পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। মহাসড়কের পাশে ময়লা-আবর্জনার স্তুপ থাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম জনগুরুত্বপূর্ণ সড়কে চলাচলকারী যানবাহনের যাত্রীরা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন। তারা নাক চেপে ধরে কোনো রকমে পথ অতিক্রম করতে বাধ্য হচ্ছেন। দুর্গন্ধ সইতে না পেরে অনেকেই বমি করেন।

একাধিক অভিভাবক জানান, পাশেই স্কুল ও মাদরাসার কয়েক’শ ছাত্র-ছাত্রী দুর্গন্ধের মধ্যেই লেখাপড়া করতে বাধ্য হচ্ছেন। কাছাকাছি স্কুল বা মাদ্রাসা থাকায় এবং দুর্গন্ধের কারণে শিশু-সন্তানদের স্কুলে লেখাপড়া করানো সম্ভব হচ্ছে না।

আবর্জনার ক্ষতিকর বিষয় নিয়ে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. নাছিমা আক্তার বলেন, ‘মহাসড়কের পাশে ময়লা-আবর্জনা ফেলার কারণে মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে এলাকাবাসী। এই আবর্জনাগুলো ব্যবহার্য পানির মাধ্যমে মানুষের দেহে নানা রোগের সৃষ্টি করছে।

এদিকে ময়লা আবর্জনার ওই স্তুপ বড় হয়ে গেলে সেগুলো সরিয়ে না নিয়ে দেওয়া হয় আগুন। ওই আগুনে ময়লার কাগজ-পলিথিন পুড়লেও সেই সাথে পুড়ে যাচ্ছে মহাসড়কের পাশে থাকা ছোট-বড় অনেক গাছ। নিচ থেকে আগুনে কয়লা হয়ে যায় গাছের গোড়া। ক্রমশই গাছগুলো মরে মহাসড়কের ওপর ভেঙ্গে পড়ছে গাছের ডাল-পালা। এতে যে কোন সময় বড় ধরণের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছে মহাসড়কের চলাচলরত গাড়ি চালক ও যাত্রীরা।

চান্দিনা উপজেলা গেইট সংলগ্ন পাট গবেষনা আঞ্চলিক কেন্দ্রের সামনে মারুতি গাড়ি চালক রফিকুল ইসলাম জানান, আগুনে পুড়ে গাছগুলো মরে ডাল-পালা ভেঙ্গে মহাসড়কের উপরেই পড়ছে। বড় ডাল-পালা ভেঙ্গে গাড়িতে পড়লে যে কোন সময় বড় দুর্ঘটনা ঘটে হতাহতের ঘটনাও ঘটতে পারে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ কুমিল্লাঅঞ্চলের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আহাদ উল্লাহ জানান, মূলত মহাসড়কের পাশে ময়লা আবর্জনা ফেলাই অপরাধ। পরিবেশ দুষণের পাশাপাশি আগুনে গাছ-পালা পুড়ে যাওয়ার বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের…
কালভার্ট সংস্কার করার…
তাবলিগ জামাতের আমির…
করোনাঃ নারায়ণগঞ্জে ১…
আরব আমিরাতে প্রবাসী…
সেদ্ধ ভাত খান,…
মক্কা-মদিনায় ২৪ ঘণ্টার…
চান্দিনায় ছাত্রলীগ নেতা…
রাউজানের চিকদাইর ইউনিয়নে…

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের নিকট…

করোনাঃ নারায়ণগঞ্জে ১ নারীর…

সেদ্ধ ভাত খান, এটা…

চান্দিনায় ছাত্রলীগ নেতা আপন…

রাউজানের চিকদাইর ইউনিয়নে ১৫০০…