কুমিল্লা চান্দিনায় টমেটো চাষে কৃষকের চোখে রঙ্গিন স্বপ্ন।।সকালের কন্ঠ

সকালের কণ্ঠ

আলিফ মাহমুদ কায়সার,কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ


♠কৃষিবিষয়ক কর্মশালা নিশ্চিতকরণের দাবি
♠পরিকল্পিত আধুনিক চাষ পদ্ধতি লাভ বেশি
♠টমেটো চাষ বানিজ্যিকীকরণে কৃষকদের উদ্ধুদ্বকরণ

কুমিল্লার চান্দিনা কৃষিতে দ্রুত বিকাশে একটি সমৃদ্ধ জনপদ। ধান গম ইত্যাদি ফসলের পাশপাশি সবজি আবাদেও অত্র এলাকা দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে।

উপজেলা সদর থেকে প্রায় পনেরো কিলোমিটার দূরে মহিচাইল ইউনিয়নের জামিরাপাড়া গ্রামের কৃষক মো.আব্দুল কাদির নিজের বাড়ির সম্মুখে গড়ে তুলেছেন একটি পরিকল্পিত কৃষি জমি।

প্রায় ১০ বৎসর ধরে কাদির কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাদের পরামর্শক্রমে আধুনিক পদ্ধতিতে বিভিন্ন প্রকার সবজি চাষ করছেন। এ মৌসুমে নিজের প্রায় ৩ (তিন) একর জমিতে টমেটো চাষ করছেন। তার এই দৃষ্টি নন্দন টমেটো জমি দেখে আশেপাশের সবাই অভিভূত।

বড় বড় কাঁচা-পাকা টমেটোর ভারে নুয়ে পড়েছে ডাল। উচ্চ ফলনশীল এই টমেটো চাষ তাঁকে এনে দিয়েছে আর্থিক স্বচ্ছলতা ও খ্যাতি।
এই ধরনের উদ্যোগ বাণিজ্যিক কৃষির একটি সফল দৃষ্টান্ত। কৃষক আব্দুল কাদির বলেন, “প্রতিদিনই ক্ষেত থেকে টমেটো সংগ্রহ করে সবজি স্থানীয় বাজারগুলোতে ভাল দামে বিক্রি করেন এবং এই মৌসুমে টমেটো চাষ থেকে কমপক্ষে ২ (দুই) লাখ টাকা আয় করেছেন। ভাল ফলনের জন্য তিনি সুষম সার এবং নিজ বাড়িতে উৎপাদিত জৈব সার ব্যবহার করে থাকেন।

তার পাশের বাড়ির কৃষক খোরশেদ আলম বলেন, “এই ধরণের বাণিজ্যিক কৃষি বাংলাদেশকে উন্নত দেশে পরিনত করতে সাহায্য করবে”। স্থানীয় এক যুবক বলেন, “আমি বিদেশে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। কিন্তু আব্দুল কাদিরের এই কৃষি প্রকল্প দেখে আমি বিদেশে যাওয়ার সিদ্ধান্ত পরিত্যাগ করেছি এবং এ ধরণের প্রকল্প গড়ার জন্য মনস্থির করেছি”।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এহতেসাম রাসুলে হায়দার জানান “চান্দিনার কৃষি আজ বাণিজ্যিক ধারায় প্রবেশ করেছে। মাঠ পর্যায় উদ্ধুদ্ব করণ কর্মসূচীর ফলে তার মত আদর্শ কৃষক তৈরী হয়েছে। অত্র এলাকায় জনাব কাদির একজন অনুসরনীয় কৃষক। টমেটো ছাড়াও তার জমিতে সীম,বেগুন, আলু ইত্যাদি সবজি চাষ হয়ে থাকে”।

কৃষক আব্দুল কাদির জানান, তাঁর জমিতে উৎপাদিত সবজিকে বিষ মুক্ত রাখতে তিনি দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। অন্যান্য অনেক কৃষককে তিনি পরামর্শ ও সহযোগিতা প্রদান করেন। তিনি আরো জানান, কৃষি উপ-সহকারী ও কৃষি বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ তাকে সার্বক্ষনিক সহযোগিতা ও পরামর্শ প্রদান করেন।

এদিকে আরও দুইজন সবজি চাষী আব্দুর রশিদ এবং মোঃ রেজাউল করিম জানান, “প্রতিবছর আমরা টমেটোসহ বিভিন্ন প্রজাতির সবজি চাষ করি।নির্দিষ্ট বিনিয়োগ শেষে অধিক মুনাফা অর্জিত হয়।তবে কৃষি খামার কর্মকর্তারা আমাদের আধুনিক চাষ পদ্ধতি সম্বন্ধে কৃষিবিষয়ক পরামর্শ দিলে অনেক কিছু শিখতে পারতাম। তাদের কলাকৌশল গুলো আমাদের জমিতে প্রয়োগ করে আরো লাভবান হতাম”।

উপজেলা কৃষি উপ-পরিচালক মো.মাজেদুল ইসলাম বলেন, “চান্দিনা একটি প্রবাসী অধ্যুষিত এলাকা হলেও এখানে সবজি চাষ দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং এখানে বেশ কিছু আদর্শ সবজি চাষী তৈরী হয়েছে যেটা অত্যন্ত আশাপ্রদ বিষয়।

(Visited 1 times, 1 visits today)

আরও পড়ুন

করোনাঃ মৃত্যু ১,…
হাটহাজারীতে এক হাজার…
বন্ধু নির্বাচন করনীয়
রাউজানে নিরাপদ দূরত্ব…
চান্দিনার জোয়াগে দুর্বৃত্তরা…
চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের…
কালভার্ট সংস্কার করার…
তাবলিগ জামাতের আমির…
করোনাঃ নারায়ণগঞ্জে ১…

করোনাঃ মৃত্যু ১, নতুন…

হাটহাজারীতে এক হাজার পরিবারের…

বন্ধু নির্বাচন করনীয়

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের নিকট…

করোনাঃ নারায়ণগঞ্জে ১ নারীর…